মেদ/চর্বি কমাতে করণীয় কি জেনে নিন

পেটে মেদ বা চর্বি হলে চলাফেরা যেমন কষ্ট হয় তেমনি নষ্ট হয় সৌন্দর্য । এর কারণে আমাদের নানারকম সমস্যা হয় অনেক সময় ভালো কোন পোশাক করা যায় না বেশি কাজ করা যায় না তাই শরীরের এই বাড়তি মেদ বা চর্বি কিভাবে দূর করা যায় তা নিচে আলোচনা করা হবে । আরো আলোচনা করা হবে মেদ বা চর্বি কমাতে ব্যায়াম করতে হবে । তাহলে চলুন দেরি না করে শুরু করা যাক বিস্তারিত তথ্য-

প্রিয় পাঠক আপনি যদি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়েন তাহলে নিশ্চয়ই আমরা নিচে যে তথ্যগুলো আলোচনা করব তা থেকে আপনি অনেক কিছু জানতে পারবেন-

পেজ সূচিপত্রঃ মেদ/চর্বি কমাতে করনীয় কি কি জেনে নিন
  • মেদ/চর্বি কমাতে করণীয়
  • মেদ বা চর্বি কমাতে পেটের ব্যায়াম
  • শেষ কথা

মেদ/চর্বি কমাতে করণীয়

প্রিয় পাঠক নিচে আমরা আলোচনা করব মেদ বা চর্বি কমাতে আপনার করণীয় কি কি আপনি কোন খাবার বেশি খাবেন এবং কোন খাবার কম খাবেন সেই সম্পর্কে এবং কি কি ব্যায়ামের মাধ্যমে আপনি আপনার মেদ বা চর্বি  কমাতে পারেন । তাহলে চলুন দেরি না করে শুরু করা যাক মেদ বা চর্বি কমানোর করণীয় বিস্তারিত তথ্য-

  • প্রতিদিন সকালটা শুরু হোক লেবুর শরবত দিয়ে । এই পদ্ধতি পেটের মেদ কমানোর সবচেয়ে কার্যকরী একটি উপায় । এক গ্লাস হালকা গরম পানিতে লেবু চিপে শরবত করে সঙ্গে একটু লবণ মিশিয়ে নিন । ইচ্ছে হলে একটু মধু মেশি নিতে পারেন । কিন্তু চিনি মেশাবেন না । প্রতিদিন সকালে এভাবে পানি পান করুন । এই পানি আপনার বিপাক প্রক্রিয়া বাড়িয়ে পেটের মেদ কমাতে সাহায্য করবে ।
  • সাদা ভাত কম খান অথবা কিছুদিনের জন্য ছেড়ে দিন সাদা ভাতের চাল খাওয়া । সাদা চালের ভাতের বদলে বিভিন্ন গম জাতীয় শস্য যুক্ত করে নিন আপনার প্রতিদিনের খাদ্য তালিকা । তাছাড়া লাল চালের ভাত গমের রুটি ও অন্যান্য যুক্ত করে নিতে পারেন ।
  • চিনি  জাতীয় খাবার থেকে দূরে থাকুন অর্থাৎ চিনি কে না বলুন । এছাড়া মিষ্টি জাতীয় খাবার যেমন মিষ্টি চকলেট আইসক্রিম , সেমাই ইত্যাদি থেকে কিছুদিনের জন্য বিদায় নিয়ে নিন ।
  • উচ্চ তেল যুক্ত খাবার এবং কোল্ড ড্রিংসগুলো শরীরের বিভিন্ন জায়গায় চর্বি জমিয়ে দেয় । যেমন আমাদের পেট কিংবা উরু । সুতরাং বুঝেই ফেলেছেন যে এই খাবারগুলো তালিকা থেকে বাদ দিতে হবে ।
  • পেটের মেদ বা চর্বি কাটিয়ে উঠতে চাইলে প্রতিদিন প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে । তাহলে শরীরে বিপাকের হাড় বাড়ানোর পাশাপাশি শরীরে বিষাক্ত উপাদান গুলোকে দূরে করে দিবে । তাই পানি পান করার গুরুত্ব অপরিসীম ।
  • কাঁচা রসুনের কয়েক কুয়া সকালবেলা চুষে খান । তারপরে লেবুর শরবত পান করুন । এই চিকিৎসাটি আপনার ওজন কমানোর জন্য সাহায্য করে এবং শরীরের রক্ত প্রবাহ সহজ করবে ।
  • যতদিন পেটে মেদ বা চর্বি না কমবে ততদিন মাছ , মাংস , ডিম , দুধ বাদ দিতে হবে । তবে মাছের টুকরো চামড়া ফেলে খাওয়া যেতে পারে ।
  • প্রতিদিন সকাল ও বিকাল এই দুই সময়ই ফল ও সবজি খান । তবে এক্ষেত্রে পানি জাতীয় ফল বাছাই করুন । এই অভ্যাসটি আপনার দেহে এন্টিঅক্সিডেন্ট ভিটামিন এবং খনিজ লবণের ঘাটতি পূরণ করবে ।
  • যার খাবার খান । অবাক হচ্ছেন ? জাল খাবার খাবেন কিন্তু জালগুলো আসবে দারচিনি , আদা , গোলমরিচ এবং কাঁচা মরিচ থেকে । এগুলো রান্নায় ব্যবহার করুন । এগুলো শরীরের ইনসুলিন বাড়ায় এবং রক্তে সুগার লেভেল কমাতে সাহায্য করে । সবকিছুর করার পরেও আপনাকে যেটা করতে হবে তা হলো ব্যায়াম । মেদ বা চর্বি কমাতে ব্যায়ামের বিকল্প নেই । নিচে আমরা আলোচনা করব মেদ বা চর্বি কমাতে কিভাবে ব্যায়াম করতে হবে ।
প্রিয় পাঠক আপনি যদি উপরের অংশটুকু পড়ে থাকেন তাহলে নিশ্চয় জানতে পেরেছেন যে মেদ বা চর্বি কমাতে আপনার কি কি করণীয় । আপনি যদি এখন জানতে চান যে মেদ বা চর্বি কমাতে আপনাকে কি কি ব্যায়াম করতে হবে তাহলে দেরি না করে নিচের অংশটুকু মনোযোগ সহকারে পড়ুন ।

মেদ বা চর্বি কমাতে পেটের ব্যায়াম

প্রিয় পাঠক নিচে আমরা আলোচনা করব কিভাবে ব্যায়ামের মাধ্যমে আপনি আপনার শরীরের মেয়াদ বা চর্বি কমাবেন । উপরে আমরা আলোচনা করেছি মেদ বা চর্বি কমাতে কি কি খাবার পরিহার করতে হবে কোন কোন খাবার বেশি খেতে হবে ইত্যাদি বিষয়ে সম্পর্কে । তাহলে চলুন দেরি না করে শুরু করা যাক মেদ বা চর্বি কমানোর ব্যায়ামগুলো-


ব্রিস্ক ওয়ার্কিংঃ প্রথমে ধীরে ধীরে এক মিনিট হাঁটুন , তারপর গতি বাড়িয়ে জোরে ৩০ সেকেন্ড হাঁটুন । আবার ধীরে ধীরে এক মিনিট হাটুন , আবার জুড়ে ত্রিশ সেকেন্ড এভাবে 5 থেকে 10 মিনিট করুন ।

জগিংঃ প্রথমে এক মিনিট জগিং তারপর ৩০ সেকেন্ডে দৌড়ানো তারপর আবার এক মিনিট জগিং ও ৩০ সেকেন্ডে দৌড়ানো এভাবে পাঁচ মিনিট ।

ক্রাঞ্চ ঃ মাদুর বা মেটে চিত হয়ে শুয়ে পড়ুন । এবার হাটোবাজ করে বুকের কাছে আনতে চেষ্টা করুন । একই মাথার সঙ্গে পেছনের হাত দিয়ে শরীরটাকে উড়িয়ে হাঁটুর কাছাকাছি নিয়ে যান । একসঙ্গে আনার সময় শ্বাস নেবেন আগের অবস্থানে ফিরে যাওয়ার সময় শ্বাস ছেড়ে দিবেন । দিনে দুবেলা 10 থেকে 20 বার করুন ।

৯০ ডিগ্রী পাঃ মেটের উপর চিট হয়ে শুয়ে পড়ুন , হাতের তালু ম্যাটের উপর থাকবে । এবার পা দুটো জোড়া করে ৯০ ডিগ্রি উপরে উঠিয়ে দিন ১০ সেকেন্ডে ধরে রাখুন । পাস রোজা রেখে হাটু বাজনা করে নামিয়ে আনুন । 10 থেকে 20 বার করুন ।

প্লাটার কিকঃ মেটে জিৎ হয়ে শুয়ে দুটো হিপের নিচে রাখুন । এবার মাথা কাধ পা ম্যাট থেকে ধীরে ধীরে উপরে দিকে উঠান । এই অবস্থায় দ্রুত পা দুটো উঠানামা করুন ৫ থেকে দশবার ।

শেষ কথা

প্রিয় পাঠক উপরে আমরা আলোচনা করেছি যে মেদ কমাতে আমাদের কি কি করা উচিত এবং মেদ বা চর্বি কমাতে কিভাবে ব্যায়াম করা উচিত তা সম্পর্কে কিছু তথ্য । আপনি যদি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পুরো আর্টিকেলটি পড়ে থাকেন তাহলে নিশ্চয়ই জানতে পেরেছেন । তত্ত্ববহুল এই আর্টিকেলটি যদি আপনার কাছে ভালো লেগে থাকে বা মেদ বা চর্বি কমাতে আরো কিছু তথ্য জানার থাকে তাহলে কমেন্টে কমেন্ট করে আপনার মূল্যবান বক্তব্য তুলে ধরুন ।


Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url