মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায়

আপনারা কি মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় বা নাকের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় ও মুখের তৈলাক্ত ভাব দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে আমাদের আজকের এই পোস্টটি আপনাদের জন্য। আজকে আমরা আলোচনা করব ছেলেদের মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায়, মুখের তৈলাক্ততা দূর করার ক্রিম বা তৈলাক্ত ত্বকের ব্রণ দূর করার উপায় সম্পর্কে।
তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নেই, মুখের তৈলাক্ততা দূর করার ফেসওয়াস এবং মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় সম্পর্কে।

সূচিপত্রঃ মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায়

ছেলেদের মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায়| তৈলাক্ত ত্বকের ব্রণ দূর করার উপায়

আমরা সকলেই জানি যে, খুব সহজেই তৈলাক্ত ত্বকে ধুলাবালি জমতে পারে। মুখের লোমকূপ যার কারনে বন্ধ হয়ে যায় এবং আমাদের মুখে ব্রনের পরিমাণ অতিরিক্ত হয়। সেজন্য আমাদের আজকের আর্টিকেলে ছেলেদের মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় বা তৈলাক্ত ত্বকে ব্রণ দূর করার উপায় সম্পর্কে আলোচনা করব। ছেলেদের ত্বক কিংবা কোন কোন মেয়ের ত্বক অতিরিক্ত তৈলাক্ত হয়ে থাকে। যাদের সাধারণত মুখ অতিরিক্ত তৈলাক্ত হয়ে থাকে তাদের ব্রণ বের হতে দেখা যায়। ছেলেদের মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় এবং তৈলাক্ত ত্বকের ব্রণ দূর করার উপায় গুলো আলোচনা করা হলো-

  • যদি আপনি তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন নিতে আগ্রহী হন তাহলে সবচাইতে কার্যকরী হচ্ছে লেবু। লেবুতে আছে সাইট্রিক এসিড যা ছেলেদের মুখের তৈলাক্ততা দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এবং এটাকে নিয়ন্ত্রণ করে রাখে। এর সঙ্গে ত্বকের ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধ করে থাকে যেটা আমাদের ত্বকে ব্রণ বের হওয়া থেকে দূরে রাখতে সহায়তা করে।
  • তৈলাক্ত ত্বকে ব্রণ দূর করার ক্ষেত্রে মধু হচ্ছে খুবই কার্যকরী। তৈলাক্ত ত্বকে ব্রণ হতে মধুর এন্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান বাধা প্রদান করেন। যার কারণে ত্বকের মশ্চারাইজার স্তর ঠিক রাখে এবং ত্বক কে আরো উজ্জ্বল করে তুলতে মধু গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
  • তৈলাক্ত ত্বকের ব্রণ দূর করার ক্ষেত্রে বেসন ব্যবহার করতে পারেন। ত্বকের অতিরিক্ত তেলসে ভাব দূর করার জন্য বেসন ব্যবহার করলে ত্বককে উজ্জ্বল এবং মসৃণ দেখায়। তাই দুই চামচ বেসন এবং এক চামচ দই এর জন্য ভালোভাবে মিশ করে সেটাকে মুখে লাগিয়ে দেখতে পারেন।

নাকের তৈলাক্ততা দূর করার উপায়| মুখের তৈলাক্ত ভাব দূর করার ঘরোয়া উপায়

অনেকেরই মুখে তৈলাক্ত ভাব দেখা যায়। ঘরের বাইরে গেলে বিশেষ করে মুখ আরো বেশি তৈলাক্ত হয়ে ওঠে। অতিরিক্ত তৈলাক্ত ত্বকে বেশি পরিমাণ ব্রণ হয়ে থাকে। মুখের তৈলাক্ত ভাব দূর করার ঘরোয়া উপায় জানলে খুব সহজেই আমরা এটা থেকে মুক্তি পাব। মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় এর সাথে নাকের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় উল্লেখ করা হলো-

  • মুখের অতিরিক্ত তৈলাক্ত ভাব দূর করার জন্য ভালো মানের ফেসওয়াশ ব্যবহার করা লাগবে। অনেকেই আমরা মুখ পরিষ্কার করার জন্য ফেসওয়াশ ব্যবহার করি কিন্তু কোনটা ভালো খারাপ সেটা বিবেচনা করি না। যার কারণে মুখের ক্ষতি হয়। সেজন্য ব্যবহার করার সময় ভালো মানের ফেসওয়াশটা ব্যবহার করতে হবে।
  • আপনার মুখ যদি অতিরিক্ত পরিমাণ তৈলাক্ত হয় তাহলে ভারী মেকআপ থেকে সব সময় দূরে থাকবেন। যদি আপনি ভারী মেকআপ ব্যবহার করেন তাহলে আপনার মুখের ছিদ্রগুলো বন্ধ হয়ে যাবে এবং আরো বেশি ব্রণ বের হতে থাকবে। সেজন্য মুখে তোলা তো ভাব দূর করতে এবং ব্রণ থেকে বাঁচার জন্য ভারী মেকআপ থেকে দূরে থাকতে হবে।
  • ত্বকে তৈলাক্ত ভাব দূর করার ক্ষেত্রে স্ক্রিন টোনার অনেক উপকারী। এটা ব্যবহার করলে ত্বকের পি এইচ এর মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করার জন্য সাহায্য করে থাকবে। ত্বকের ছিদ্র খোলা রাখার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। যার কারণে ত্বকে ব্রণ বের হয় না। সেজন্য আপনার ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করার জন্য এটা ব্যবহার করতে পারবেন।

মুখের তৈলাক্ততা দূর করার ক্রিম

বর্তমান সময়ে প্রায় সবারই মুখের একটা সমস্যা হচ্ছে তৈলাক্ততা। তার জন্য তাদের মুখে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিয়ে থাকে। বিভিন্ন ধরনের সমস্যা তাদের মুখে দেখা দেয় যেমন ব্রণ এবং মুখ অনুজ্জ্বল হওয়া। এখন মুখের তৈলাক্ততা দূর করার ক্রিম পাওয়া যায়। সেটা ব্যবহার করলে মুখের তৈলাক্ততা দূর হবে। যাদের মুখে ব্রণ ও তৈলাক্ত হয়ে থাকে তাদের জন্য আজকে আমি ৫টা ক্রিমের কথা উল্লেখ করব। আশা করি এ ক্রিমগুলো ব্যবহার করলে মুখের তৈলাক্ততা দূর হবে। ক্রিমগুলো হচ্ছে-

  • ফরেস্ট এসেনশিয়াল নাইট ট্রিটমেন্ট জেসমিন এন্ড পাচলী ক্রিম।
  • কামা রিজুভেনেটিং অ্যান্ড ব্রাইটেনিং আয়ুর্বেদিক নাইট ক্রিম।
  • লেকমে উইথ ইনফিনিটি স্কিন ফারমিং নাইট ক্রিম।
  • ভিচি নরমাড্রাম এন্টি ইমপারফেক্টসান্স এন্ড রিজুভিনেটিং কেয়ার নাইট ক্রিম।
  • পন্ডস গোল্ড রেডিয়েন্স ইউথফুল নাইট রিপেয়ার ক্রিম।

মুখের তৈলাক্ততা দূর করার ফেসওয়াস

তৈলাক্ত ত্বকে বেশি ব্রণ বের হতে থাকে। কেননা অল্পতেই তৈলাক্ত ত্বকে ময়লা জমে যায়, যার কারণে লোমকূপ গুলো বন্ধ হয়ে থাকে। লোমগুলো বন্ধ হবে যাবার কারণে সেগুলো দিয়ে বের হতে থাকে ব্রণ। ইতিমধ্যে আমরা মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় সম্পর্কে জানতে পেরেছি। এখন মুখের তৈলাক্ততা দূর করার ফেসওয়াস সম্পর্কে জানব। কোন ফেসওয়াসটা মুখের জন্য ভালো হবে, মুখের তৈলাক্ততা দূর হবে সেই সম্পর্কে জেনে নিই। মুখের তৈলাক্ততা দূর করার ফেসওয়াসগুলো নিম্নরূপ-

আরো পড়ুনঃ কেমোথেরাপি খরচ কত বাংলাদেশে

পিয়ার্স আলট্রা মাইন্ড ফেসওয়াস ইন অয়েল ক্লিনার গ্লোঃ মুখের তৈলাক্ততা দূর করার ফেসওয়াস এর মধ্যে এটা হচ্ছে অন্যতম। এই ফেসওয়াসটা ব্যবহার করার মাধ্যমে মুখের তেলতেলে ভাবটা দূর হয়ে যায়। এবং লোমকূপের ভিতর থেকে তেলতেলে ভাব দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

ডারমালজিকা ব্রেক আউট ক্লিয়ারিং ফোমিং ওয়াশঃ এই ফেসওয়াস টা ত্বককে গভীর থেকে পরিষ্কার করে থাকে। ফেনা যুক্ত এই ফেসওয়াসটা ত্বকের জন্য অনেক উপকারী এবং কার্যকরী। বিশেষ করে তৈলাক্ত ভাব দূর করতে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

সিম্পল ডেইলি স্কিন ডিটক্স পিউরিফায়িং ফেসিয়াল ওয়াসঃ ত্বকের তেল তেলে ভাব দূর করার ক্ষেত্রে এই ফেসওয়াস টা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এটা লোমকূপ গুলোর তৈলাক্ত ভাব দূর করে থাকে।

শেষ কথাঃ মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায়

ছেলেদের মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় নাকের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের পুরো পোষ্টটি ভালোভাবে পড়ুন, আশা করি সবকিছু ভালোভাবে বুঝতে পারবেন। মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় মুখের তৈলাক্ত ভাব দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে যদি সবার আগে জানতে চান আমাদের সাথেই থাকুন।

আজ আর নয়, মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় সম্পর্কে আপনার কোন কিছু জানার থাকলে আমাদের কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন। আশা করি আমরা আপনার উত্তরটি দিয়ে দেবো। তাহলে আমাদের আজকের এই মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায় সম্পর্কে পোস্টটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে, তাহলে আপনার ফেসবুক ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইলে আমাদের পোস্টটি শেয়ার করতে পারেন। ধন্যবাদ। ২৩৭৬৬

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url