কফ হলুদ হওয়ার কারণ - সর্দি হলুদ হয় কেন

আপনি কি কফ হলুদ হওয়ার কারণ সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন তাহলে আজকের আর্টিকেলটি আপনার জন্য। কেননা আজকের আর্টিকেলটিতে কফ হলুদ হওয়ার কারণ এবং ঘন ঘন কফ আসার কারণ কি ইত্যাদি বিষয়গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। তাই কফ হলুদ হওয়ার কারণ জানতে আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।
কফ হলুদ হওয়ার কারণ
নিজে আপনাদের জন্য ঘন ঘন কফ আসার কারণ কি, হলুদ সর্দি এবং কফ সবুজ হওয়ার কারণ সহ কফ হলুদ হওয়ার কারণ ইত্যাদি বিষয়গুলো ধাপে ধাপে আলচনা করা হয়েছে। যেখান থেকে আপনি খুব সহজেই কফ হলুদ হওয়ার কারণ জেনে নিতে পারবেন। তাই দেরি না করে আর্টিকেলটি পড়ে কফ হলুদ হওয়ার কারণ জেনে নিন।

পেজ সূচিপত্রঃ কফ হলুদ হওয়ার কারণ - সর্দি হলুদ হয় কেন 

ঘন ঘন কফ আসার কারণ কি

অনেক সময় দেখা যায় যে অনেকের ঘন ঘন কফ আসে। তাই অনেকে এ বিষয় নিয়ে অনেক দুশ্চিন্তায় থাকেন। তবে এই বিষয় নিয়ে দুশ্চিন্তায় না থেকে আপনাকে আগে জানতে হবে ঘন ঘন কফ আসার কারণ কি সে সম্পর্কে। ঘন ঘন কফ আসার কারণ কি জানার পর আপনাকে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে হবে।
শ্বাসনালির ভেতর কফ তৈরির গ্রন্থি বা গ্র্যান্ডগুলো অতিরিক্ত বেড়ে যাওয়ার ফলে প্রতিনিয়ত ঘন ঘন কফ নির্গত হয় আর এ অবস্থা কে বলা হচ্ছে ক্রনিক ব্রঙ্কাইটিস। এ অবস্থার তখনই সৃষ্টি হয় যখন শাসনালীতে অতিরিক্ত ধুলা প্রবেশ করে বা ধোয়ার সংস্পর্শ পায় অথবা শ্বাসনালীতে ইনফেকশন হবার কারণে এই অবস্থার সৃষ্টি হয়। তাহলে আপনার যদি ঘনঘন কফ আসে তাহলে আপনি সর্বপ্রথম ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন। 

কফ সবুজ হওয়ার কারণ

সাধারণত কফ সাদা রঙের হয়। তবে সব সময় যে কফ সাদা রঙেরই হয়ে থাকে তা নয় বরং অনেকের আবার দেখা যায় যে কফ সবুজ রঙের হয়। এখন প্রশ্ন হচ্ছে কফ সবুজ হওয়ার কারণ কি। কফ সবুজ রং হলে দুশ্চিন্তার কোন কারণ নেই। আপনাকে বলবে জানতে হবে কফ সবুজ হওয়ার কারণ কি এবং সে অনুযায়ী ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ব্যবস্থা নিতে হবে।
মানুষের যখন কাশি হয় তখন দেখা যায় কফ নির্গত হতে। এখন সাধারণ কাশির কফ এর রং হচ্ছে সাদা।তবে অনেক সময় অনেকের কফের রং বিভিন্ন ধরনের হতে পারে যেমন হলুদ কিংবা সবুজ। হওয়ার কারণ হচ্ছে বুঝে নিতে হবে এটা ইনফেকশন এর কারণে হচ্ছে। তবে এ বিষয়ে বেশি দুশ্চিন্তা না করে যত দ্রুত সম্ভব ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ডাক্তারি পরামর্শ অনুযায়ী চললে অবশ্যই সঠিক সমাধান পাওয়া যাবে।

কফ হলুদ হওয়ার কারণ

সাধারণত যাদের কাশি হয় তাদের দেখা যায় যে সাদা রঙের কফ বের হয়। তবে কফের কালার যদি পরিবর্তন হয় তাহলে সেটা একটু চিন্তার ব্যাপার। কেননা স্বাভাবিক অবস্থায় কফের রং পরিবর্তন হয় না।অনেকের দেখা যায় কফের রং হলুদ হয়ে যায়। তাই কফ হলুদ হওয়ার কারণ কি সে সম্পর্কে অবশ্যই জানতে হবে। 
যে সকল কারণে কফ হলুদ হতে পারে তা হচ্ছে ফুসফুসে ফোঁড়া, ব্রংকিংএকটেসিস, ক্রনিক ব্রঙ্কাইটিসসহ অনেক ধরনের বক্ষব্যাধি। অর্থাৎ যেখানে জীবাণুতে সংক্রমণ ঘটায় সেগুলোকে বুঝায়। ব্রংকিংএকটেসিস এ আক্রান্ত ব্যক্তিদের কফ কাশির সঙ্গে পাকা হলুদ হয়ে বের হয়। আর এ ধরনের সমস্যা হচ্ছে ফুসফুসের দীর্ঘস্থায়ী একটি সমস্যা। আশা করি কফ হলুদ হওয়ার কারণ কি তা জানতে পেরেছেন।

সর্দি হলুদ হয় কেন

স্বাভাবিক অবস্থায় মানুষের শরীরে যখন ঠান্ডা লাগে তখন দেখা যায় সর্দি হতে। তবে এই সর্দির কালার থাকে সাদা। কিন্তু কখনো কখনো দেখা যায় অনেকের সর্দি হলুদ হয়। এখন প্রশ্ন হতে পারে সর্দি হলুদ হয় কেন। বিষয়টি আসলেই ভাববার বিষয়। সর্দি হলুদ হওয়ার কারণ হতে পারে ইনফেকশন। শ্বাসনালী অথবা ফুসফুসে ইনফেকশনের কারণে সর্দি হলুদ হয়।

গলায় কফ আটকে থাকার কারণ

অনেক সময় দেখা যায় অনেকের গলায় কফ আটকে থাকে। এই বিষয়টা নিয়ে অনেকে দুশ্চিন্তা করেন। তবে দুশ্চিন্তা না করে যে বিষয়টি আপনাদের জানতে হবে তা হচ্ছে গলায় কফ আটকে থাকার কারণ কি সে সম্পর্কে। গলায় কফ আটকে থাকার কারণ হতে পারে ঠান্ডা বা করোনার মতো সংক্রমণ। এছাড়াও আপনার যদি ব্রঙ্কাইক্টেসিস (Bronchitis Mucus) এবং ক্রনিক অবস্ট্রাকটিভ পালমোনারি ডিজিজ (সিওপিডি) রোগ থেকে থাকে তাহলে গলায় কফ আটকে থাকবে এটাই স্বাভাবিক। তাই গলায় কফ আটকে থাকলে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

হলুদ সর্দি

অনেক সময় দেখা যায় যে অনেকের হলুদ সর্দি হয়ে থাকে। তবে স্বাভাবিকভাবে সর্দি লাগলে সর্দির কালার হয় সাদা। কিন্তু সেই সর্দি যখন হলুদ সর্দি হয় তখন বুঝতে হবে আপনার কোন ইনফেকশন রয়েছে বা এটা বড় ধরনের সমস্যার কারণ হতে চলেছে। তাই যখনই আপনার সর্দির বর্ণ পরিবর্তন হবে তখনই আপনাকে ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে।

কফ লাল হয় কেন

কফ লাল হয় কেন এ বিষয়ে জানা অবশ্যই জরুরি। কেননা কফ লাল হয় কেন এটা স্বাভাবিক কিছু না। কফের বর্ন সাধারণত হয় সাদা। কিন্তু লাল বর্ণের তখনই হয় যখন কফের সাথে রক্ত আসে। তাই এ বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে যে কফের সাথে রক্ত আসে কি না। যদি কফের সাথে রক্ত আসে তাহলে অবশ্যই আপনাকে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। কেননা কফের সাথে রক্ত আসলে ফুসফুস বা শাসনালীর সমস্যা হয়েছে বলে ধরা হয়।

আশা করি আজকের আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েছেন এবং কফ হলুদ হওয়ার কারণ সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। আজকের আর্টিকেলটিতে কফ হলুদ হওয়ার কারণ ছাড়াও আপনারা জানতে পেরেছেন কফ লাল হয় কেন, গলায় কফ আটকে থাকার কারণ এবং সর্দি হলুদ হয় কেন ইত্যাদি বিষয়গুলো সম্পর্কে। আশা করি এসকল তথ্যগুলো আপনাদের অনেক উপকারে আসবে। তাই এধরণের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বেশি বেশি জানতে ও পড়তে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন, ধন্যবাদ। 21021.

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url