মুখ তিতা দূর করার উপায় - মুখ কেন তিতা হয়

আপনারা কি মুখ তিতা দূর করার উপায় বা জ্বর হলে মুখ তেতো হয় কেন ও মুখ কেন তিতা হয় সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে আমাদের আজকের এই পোস্টটি আপনাদের জন্য। জ্বর সহ বিভিন্ন কারণে মুখ তেতো হয়ে থাকে। তাই আজকে আমরা আলোচনা করব গর্ভাবস্থায় মুখ তিতা দূর করার উপায় বা জিহ্বা তিতা হয় কেন ও মুখ কেন তিতা হয় এবং করোনায় মুখ তিতা সম্পর্কে।

তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নেই, মুখ তিতা দূর করার উপায় এবং মুখ কেন তিতা হয় ও সকালে মুখ তিতা সম্পর্কে।

সূচিপত্রঃ মুখ তিতা দূর করার উপায় - মুখ কেন তিতা হয়

মুখ তিতা দূর করার উপায়| গর্ভাবস্থায় মুখ তিতা দূর করার উপায়

অনেকেই আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে জ্বর সর্দি কিংবা ঠান্ডায় ভুগছেন। কয়দিনের মধ্যে অবশ্য এই জ্বর সেরে যাবে। জ্বরের সময় বা জ্বর সেরে যাবার পর অনেকেরই মুখে খাবার রুচি বা ইচ্ছা থাকে না। কেননা জ্বর থেকে সেরে ওঠার পর মুখে তেমন খাবারের স্বাদ কয়েকদিন পাওয়া যায় না। কিন্তু ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া না করলে শরীর সুস্থ হতে ও সময় লাগবে। সেজন্য মুখ তিতা দূর করার উপায় গুলো অনুসরণ করতে হবে। এছাড়াও গর্ভাবস্থায় মুখ তিতা করার উপায় অনুসরণ করা জরুরী।

  • এক গ্লাস পানিতে এক চামচ লবণ দিয়ে কুলকুচি করতে হবে, যার ফলে মুখের ব্যাকটেরিয়া মরে মুখের তেতো ভাব দূর হয়।
  • দারচিনি আর লবঙ্গ গুঁড়ো করে এক চামচ করে মুখের মধ্যে রাখতে পারেন, এতেও মুখের তেতো ভাব কেটে যায়। এছাড়াও শুধু লবঙ্গ রেখে চিবালে উপকার পাবেন।
  • মুখের স্বাদ আনার জন্য পুদিনা পাতা খুবই দরকারি। মুখের মধ্যে দুই একটা পুদিনা পাতা রাখলে মুখের তেতো ভাব কমে যায়।
  • অনেকেই বলে জ্বরের পর মুখ কেন তিতা হয়, সে ক্ষেত্রে লেবু জাতীয় ফল শরীরের জন্য উপকার করে অপরদিকে মুখের স্বাদ ফেরাতেও খুব কার্যকরী।
  • জ্বরের পরদিন কমপক্ষে সাত থেকে আট গ্লাস পানি পান করার চেষ্টা করুন। পানি পাকিস্থলী থেকে টক্সিক এসিড পরিষ্কার করে মুখ এবং জিহ্বার তেতো ভাব কাটাতে সাহায্য করে থাকে।
  • মুখের মধ্যে জমে থাকা ব্যাকটেরিয়া দূর করার জন্য জ্বরের পরদিন কমপক্ষে দুইবার ভালো করে দাঁত মাজন। এতে করে মাড়ি এবং জিভ ভালো এবং পরিষ্কার থাকবে।

মুখ কেন তিতা হয়

আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জানাবো মুখ কেন দিতে হয় বা গর্ভাবস্থায় মুখ তিতা দূর করার উপায় সম্পর্কে। প্রথমেই জেনে নিই মুখ কেন তিতা হয়। মুখ তিতা হবার কারণ হচ্ছে জ্বর, ডিহাইড্রেশন, জীবাণু সংক্রমণ, লিভার ডিসিস, খাবারে খাবারে গন্ডগোল ইত্যাদি সমস্যাই মুখ তিতা হয়। প্রকৃতিতে একটু একটু করে তাপমাত্রা বাড়তেই আছে। জ্বর হলে মানুষের মুখ থেকে স্বাদ চলে যায়। দুইদিন পর জ্বর হয়তো ভালো হয় কিন্তু মুখের স্বাদ কেড়ে নিয়ে যাই। এসময় মুখ তেতো তেতো লাগে। মুখের স্বাদ দ্রুত ফিরিয়ে আনার জন্য প্রয়োজন মত পুষ্টি শরীরে দিতে হবে।

আরো পড়ুনঃ মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায়

শরীরকে হাইড্রেট করতে হবে। দৈনিক আমাদের দুই থেকে আড়াই লিটার পানি পান করা জরুরী। এর কম পানি পান করলে শরীরে পানি শূন্যতা সৃষ্টি হয়ে মুখে সেলেভা কমে যেতে পারে। সেলেভা হচ্ছে মুখের লালা রস। এছাড়া খাবার হজমের ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করে। পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি শরীরে টক্সিন দূর করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে ও লিভারের সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা কমায়।

জ্বর হলে মুখ তেতো হয় কেন| জিহ্বা তিতা হয় কেন

জ্বর এমন একটা অসুখ যেটা সেরে যাবার পরেও মুখের স্বাদ পাওয়া যায় না। জ্বর যাবার সাথে সাথে মুখের স্বাদটাকেও নিয়ে যায়। আসলে জ্বর হলে মুখ তেতো হয় কেন, জিহ্বা তেতো হয় কেন এ সম্পর্কে আমরা হয়তো অনেকেই জানিনা। সেজন্য আমাদের আজকের এই পোস্টটি, যেটা পড়লে আপনি জানতে পারবেন মুখ তিতা দূর করার উপায় এবং জ্বর হলে মুখ তেতো হয় কেন। আসলে মানুষের মগজের মধ্যে রয়েছে "হাইপোথ্যালামাস" যার বিশেষ একটা অংশ শরীরের তাপ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র হিসাবে কাজ করে থাকে।

আরো পড়ুনঃ দোয়া মাসুরা না পড়লে কি নামাজ হবে

রোগ জীবাণু সংক্রমণের কারণে জীবাণুদের শরীরে তৈরি হওয়া টক্সিন কিংবা বিষাক্ত রাসায়নিক কখনো কখনো শরীরের এই তাপ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রকে বিগড়ে দিয়ে থাকে। তখন পাইরোজেন উদ্দীপ্ত হয় হাইপোথ্যালামাসে। এসব টক্সিনের বিরুদ্ধে যুদ্ধের হাতিয়ার হিসেবে বিভিন্ন রকমের রাসায়নিক পদার্থ তৈরি করে। এর মধ্যে কিছু পদার্থ শরীরে তাপমাত্রা বৃদ্ধি করে। সেজন্য এই সকল পদার্থ কে বলে জ্বর উৎপাদক বা পাইরোজেন। এই জ্বর উৎপাদক ক্ষরণের কারণে শরীরের ভেতর থেকে তাপ উৎপাদনের হার বাড়তে থাকে। সকালে মুখ তিতা তিতা লাগে। শরীর থেকে তাপ বের হবার হার কমতে থাকে। সেজন্য জ্বর হলে মুখ তেতো হয়।

করোনায় মুখ তিতা| সকালে মুখ তিতা

বিভিন্ন কারণে মুখের স্বাদ চলে গিয়ে মুখের ভেতর তেতো হয়ে যায়। তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে করোনায় মুখ তিতা। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ব্যক্তির মুখের স্বাদ দূর হয়ে যায়। খাবারের কোন স্বাদ পাওয়া যায় না। সবকিছুই কেমন পানসে তেতো মনে হয়। সবকিছুই কেমন জানি গন্ধ স্বাদহীন কোন কিছু চিবাচ্ছে মনে হয়। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির জিহ্বার স্বাদ গ্রহণ করার গ্রন্থি গুলো সম্ভবত সম্পূর্ণ অকেজ হয়ে গেছে কিছুদিনের জন্য। ঘুম থেকে উঠার পর সকালে মুখ তিতা লাগে। সুস্থ হবার পর অবশ্য এই স্বাদ আবার ফিরে আসে।

শেষ কথাঃ মুখ তিতা দূর করার উপায় - মুখ কেন তিতা হয়

মুখ তিতা দূর করার উপায় ও মুখ কেন তিতা হয় সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের পুরো পোষ্টটি ভালোভাবে পড়ুন, আশা করি সবকিছু ভালোভাবে বুঝতে পারবেন। মুখ তিতা দূর করার উপায় ও মুখ কেন তিতা হয় সম্পর্কে সবার আগে জানতে হলে আমাদের সাথেই থাকুন।

আজ আর নয়, মুখ তিতা দূর করার উপায় ও মুখ কেন তিতা হয় সম্পর্কে আপনার কোন কিছু জানার থাকলে আমাদের কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন। আশা করি আমরা আপনার উত্তরটি দিয়ে দেবো। তাহলে আমাদের আজকের এই মুখ তিতা দূর করার উপায় ও মুখ কেন তিতা হয় সম্পর্কে পোস্টটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে, তাহলে আপনার ফেসবুক ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইলে আমাদের পোস্টটি শেয়ার করতে পারেন। ধন্যবাদ। ২৩৭৬৬

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url