মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ - মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার পিক

অনেক সময় আমাদের মুখ থেকে রক্ত পড়ে কিন্তু মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ সম্পর্কে আমরা বুঝতে পারি না। যার ফলে এর সঠিক চিকিৎসা করতে পারি না। তাই প্রথমে আমাদের মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ সম্পর্কে জানতে হবে। নিচে মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

সূচিপত্রঃ মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ - মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার পিক

মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ - নাক মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ

বিভিন্ন কারণে আমাদের নাক মুখ দিয়ে রক্ত বের হয় কিন্তু নাক মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ আমরা উপলব্ধি করতে পারি না। তাই প্রথমে আমাদের নাক মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ সম্পর্কে জানতে হবে এরপর এর সঠিক চিকিৎসা নিতে হবে।

আরো পড়ুনঃ পাহাড়পুর কোন জেলায় অবস্থিত - পাহাড়পুর কোন নদীর তীরে অবস্থিত

মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণঃ

১। কোনভাবে নাকের ভেতরে আঘাত পেলে নাকের সাইনাসের সংক্রমণ অথবা নাকের বিভিন্ন টিউমার, উচ্চ রক্তচাপ, মাদক সেবন ও বংশগত বিভিন্ন রক্তের সমস্যা ও নাক থেকে রক্ত পড়ার অন্যতম কারণ।

২। তবে এসব ক্ষেত্রে নাক দিয়ে রক্ত পড়ার পাশাপাশি বিভিন্ন রকম উপসর্গ দেখা দিয়ে থাকে। নাকের ঝিল লিচু খেয়ে গেলে অথবা ফেটে গেলে সেখানে শক্ত আবরণ সৃষ্টি হয় যার ফলে স্বাভাবিকভাবে নাক থেকে রক্তপাত হতে পারে। নাক মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ এটি।

৩। আমাদের প্রায় সকলের কমন একটা সমস্যা হলো দাঁতের সমস্যা। দাঁত থেকে রক্তের পাশাপাশি মুখ থেকে দুর্গন্ধ বের হয়। মারিতে বিভিন্ন রকম সমস্যার কারণে অথবা জীবাণু আক্রমণের ফলে রক্ত বের হতে পারে।

৪। মুখ দিয়ে রক্ত আসার বিভিন্ন রকম রোগের লক্ষণ হিসেবে গণ্য করা যায়। এর মধ্যে কিছু মারাত্মক রোগ রয়েছে। কিন্তু বিভিন্ন স্বাভাবিক কারণে ও মুখ দিয়ে হালকা রক্ত বের হতে পারে। অনেক মানুষ রয়েছে যারা ক্যান্সারে আক্রান্ত হলে মুখ দিয়ে রক্ত বের হতে পারে। তাই কখনো এরকম হলে দ্রুত ডাক্তারের চিকিৎসা গ্রহণ করুন।

৫। আবার অনেক সময় মানুষের গলা ইনফেকশন দেখা যায় এবং গড়াই ছোট ছোট ছত্রাক এর মত ক্ষত সৃষ্টি হয়। আর এখান থেকে মানুষের নানা রকম যন্ত্রণা হয় অনেক সময় রক্ত বের হতে পারে। তাই মুখ দিয়ে রক্ত বের হওয়ার অন্যতম কারণ এটি। অবহেলা না করে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন।

৬। হঠাৎ করে মানুষের স্ট্রোক হয়ে গেলে কান্না এবং মুখ দিয়ে রক্ত বের হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়। তাই যদি কখনো এরকম দেখা যায় তাহলে অবশ্যই তাড়াতাড়ি মেডিকেল নিয়ে যেতে হবে।

হঠাৎ গলা দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ - নাক ও গলা দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ

হঠাৎ গলা দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ সম্পর্কে আমরা জানিনা যার ফলে এরকম সমস্যা দেখা দিলে আতঙ্কে পড়ে যায়। তাই আমাদের প্রথমে নাক ও গলা দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ সম্পর্কে আলোচনা করতে হবে। নিচে নাক ও গলা দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ উল্লেখ করা হলো।

হঠাৎ গলা দিয়ে রক্ত পড়ার কারণঃ

১। অনেক সময় আমাদের গলার ভেতরে ইনফেকশন হয়ে থাকে এর ফলে গলায় ছোট ছোট ছত্রাকের মতো ক্ষত সৃষ্টি হয়। এখান থেকে মানুষ নানা রকম যন্ত্রণা হয় এবং অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় রক্ত বের হতে।

২। বিভিন্ন রকম কারণে আমাদের নাকে আঘাত পেলে নাক দিয়ে রক্ত বের হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এছাড়া অতিরিক্ত পরিমাণে মদ্যপান বা ধূমপান করার ফলে নাক দিয়ে রক্ত বের হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

৩। নাকের ঝিল্লি শুকিয়ে গেলে, ফেটে গেলে বা যেখানে শক্ত আবরণ সৃষ্টি হলে রক্তপাত হতে পারে। এগুলো হলো নাক ও মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ।

৪। বৃদ্ধ বয়সে রক্তনালীর সংকোচন প্রসারণশীলতার কমে যাওয়ার কারণে নাক দিয়ে রক্ত পড়া সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

৫। গলা দিয়ে বিভিন্ন কারণে রক্ত ঝরতে পারে। এরকম সমস্যা দেখা দিলে আপনাকে বুঝতে হবে আপনার ভেতরে কোন ধরনের সমস্যা হয়েছে।

৬। অনেক সময় যক্ষা খাওয়া অথবা অতিরিক্ত পরিমাণে কাশি হওয়ার ফলে গলা দিয়ে রক্ত পড়ার সম্ভাবনা থাকে।

৭। ফুসফুসের কোনো রকমের সমস্যা হলে গলা দিয়ে রক্ত পড়ার সম্ভাবনা থাকে এছাড়া ক্যান্সার এর অন্যতম লক্ষণ এটি।

থুথুর সাথে রক্ত আসার কারণ

উপরের আলোচনায় আমরা মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ সম্পর্কে জেনেছি। থুথুর সাথে রক্ত আসার কারণ হতে পারে স্বাভাবিক আবার হতে পারে অস্বাভাবিক। বিভিন্ন রকম কারণে আমাদের থুথুর সাথে রক্ত বের হয়ে থাকে। তাই প্রথমে আমাদের থুথুর সাথে রক্ত আসার কারণ সম্পর্কে জানতে হবে। অনেক সময় আমাদের দাঁতে অথবা মারিতে কোন রকমের সমস্যা হলে থুথুর সাথে রক্ত বের হয়।

আরো পড়ুনঃ শীতকালীন সবজির নামের তালিকা

তাই আপনার যদি কখনো এরকম হয় তাহলে তাদের সমস্যা সমাধান করে নিতে হবে। কারণ আমাদের দেশের বেশিরভাগ মানুষেরই সমস্যা হলো দাঁত। তাই এটি উল্লেখযোগ্য কারণ হতে পারে। আবার অনেক সময় মুখের ভেতরে ঘা সৃষ্টি হয় যার ফলে থুতু ফেলার সময় তার সাথে রক্ত বের হয়ে যায়।

আবার আমরা জানি যে মরণব্যাধি ক্যান্সারের অন্যতম লক্ষণ হল মুখ দিয়ে রক্ত বের হওয়া। তাই যদি এরকম হয় তাহলে অবশ্যই আপনাকে ডাক্তারের কাছে গিয়ে চিকিৎসা করে নেওয়া উচিত। আবার ফুসফুসের কোন সমস্যা হলে থুথুর সাথে রক্ত বের হতে পারে। এগুলোই হল মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ।

কাশির সাথে রক্ত আসার কারন কি

কাশির সাথে রক্ত আসার কারন কি? এই প্রশ্নের উত্তর হতে পারে হিমপ্টিসিস। এটি হলো ক্লোম-শাখা বা ব্রঙ্কাস, স্বরযন্ত্র, শ্বাসনালি অথবা ফুসফুস থেকে কাশির সাথে রক্ত বা রক্ত মিশ্রিত শ্লেষ্মা নির্গত হওয়া। ফুসফুসের ক্যান্সার, সংক্রমণ যেমন যক্ষ্মা, ব্রঙ্কাইটিস অথবা নিউমোনিয়া ও কিছু হৃৎপিণ্ডের রোগে এটা হতে পারে।

রক্তকাশি হতে পারে অল্প, কেবল কফের সাথে উজ্জ্বল রক্তের দাগযুক্ত, অথবা ব্যাপক। ব্যাপক রক্তকাশি বলতে ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে অন্ততপক্ষে ৬০০ মি.লি. রক্তক্ষরণ কে বুঝায় যা ৩ থেকে ১০ শতাংশ রোগীর ক্ষেত্রে ঘটে থাকে। ফুসফুসে রক্ত কয়েক দিন ধরে থাকলে ঘন লাল জমাট রক্ত বের হতে পারে। এরূপ ক্ষেত্রে সর্বদা গুরুতর ক্ষত হয়ে থাকে।

এছাড়া আরো বেশ কয়েকটি কারণে কাশির সাথে রক্ত বের হতে পারে। যদি ফুসফুসের কোন ধরনের সমস্যা হয় তাহলে কাশির সাথে রক্ত বের হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আবার কাশির সাথে রক্ত বের হওয়ার অন্যতম একটি মারাত্মক রোগ হল ক্যান্সার। তাই আমাদের যদি কখনো এরকম হয় তাহলে দেরি না করে চিকিৎসা করে নেওয়া উচিত।

আরো পড়ুনঃসরিষা তেলের উপকারিতা - ত্বকে সরিষার তেলের উপকারিতা

প্রাথমিকভাবে রক্তপাতের চেয়ে শ্বাসরোধ থেকেই বিপদের ঝুঁকি বেশি। নিম্ন শ্বসন পথ ভিন্ন অন্য কোনো উৎস থেকে রক্ত নির্গত হলে তাকে সিউডোহিমপ্টিসিস বলে। এক্ষেত্রে রোগী রক্তের উৎস ঠিকমতো বর্ণনা করতে না পারলে রোগ নির্ণয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়। আশা করি কাশি থেকে রক্ত আসার কারণ কি বিষয়টি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার পিক

মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ সম্পর্কে জেনেছি। এখন মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার পিক আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব। যেগুলো দেখে আপনারা বুঝতে পারবেন কিভাবে মুখ থেকে রক্ত বের হয়। যদি আপনাদের কখনো মুখ থেকে রক্ত বের হয় তাহলে দেরি না করে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিন। নিচে মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার পিক গুলো উল্লেখ করা হলো।

আমাদের শেষ কথাঃ মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ - মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার পিক

মুখ থেকে রক্ত পড়ার কারণ, মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার পিক, কাশির সাথে রক্ত আসার কারন কি? থুথুর সাথে রক্ত আসার কারণ, হঠাৎ করে গলা দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ, নাক ও গলা দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ, নাক মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আপনার যদি উক্ত সমস্যাটি থাকে তাহলে খুব দ্রুতই এর চিকিৎসা করা উচিত।

কারণ অনেক সময় দেখা যায় এটি বিভিন্ন রকম মারাত্মক রোগের সৃষ্টি করে। তাই দ্রুত চিকিৎসা করে নিলে এখান থেকে তাড়াতাড়ি মুক্তি পাওয়া যায়। আশা করি আপনি সম্পূর্ণ আর্টিকেল শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ে উত্তর বিষয়গুলো সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url