কেগেল এক্সারসাইজ কি - কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা

আসসালামু আলাইকুম! আপনি কি কেগেল এক্সারসাইজ কি ও কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা সম্পর্কে জানেন? এই পোস্টে কেগেল এক্সারসাইজ কি ও কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা সম্পর্কে জানতে পারবেন। তাই কেগেল এক্সারসাইজ কি ও কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা সম্পর্কে জানতে পোস্টটি পড়ুন। 

এছাড়াও কেগেল এক্সারসাইজ কিভাবে করে এবং মহিলাদের কেগেল ব্যায়াম ও কেগেল ব্যায়াম করার ছবি নিয়ে আলোচনা করা হবে। যারা কেগেল এক্সারসাইজ কি ও কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা সহ অন্যান্য বিষয়ে জানতে চান তাদের জন্য পোস্টটি গুরুত্বপূর্ণ। তো চলুন কেগেল এক্সারসাইজ কি ও কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা সহ অন্যান্য বিষয় সম্পর্কিত পোস্টটি শুরু করি।

সূচিপত্র: কেগেল এক্সারসাইজ কি - কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা

কেগেল এক্সারসাইজ কি

অন্যান্য ব্যায়াম এর নাম শুনলেও অনেকে কেগেল এক্সারসাইজ কি সে সম্পর্কে তেমন একটা ধারণা নেই। কেগেল এক্সারসাইজ কি এর কথা শুনলেই আপনাদের মনে আরেকটা কথা আসবে সেটা হলো কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা। তবে কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা জানার পূর্বে জানতে হবে কেগেল এক্সারসাইজ কি তা সম্পর্কে। এই পাঠে আমরা কেগেল এক্সারসাইজ কি তা নিয়ে আলোচনা করবো। চলুন জেনে নিই কেগেল এক্সারসাইজ কি সে সম্পর্কে।

আরো পড়ুনঃ পাহাড়পুর কোন জেলায় অবস্থিত - পাহাড়পুর কোন নদীর তীরে অবস্থিত

কেগেল ব্যায়াম হলো প্রাপ্ত বয়স্ক মহিলা ও পুরুষদের শ্রোণী মাঝের বা পেলভিক পেশি মজবুত করার একটা ব্যায়াম। পেলভিক পেশি বলতে যৌনাঙ্গের বিশেষ এক পেশি যা পায়ুপথের কার্যপ্রণালী সহ যৌনক্রিয়া কে উন্নতি করবে। মূলত কেগেল এক্সারসাইজ বলতে যৌনাঙ্গের একটি বিশেষ ব্যায়াম কে বোঝানো হয়। এই ব্যায়ামটির প্রথম ধারণা দেন ১৯৪৮ সালে আমেরিকার গাইনেকোলজিস্ট আর্নল্ড ক্যাগেল। আশা করি এই বিষয়ে বুঝতে পেরেছেন। এছাড়া কেগেল এক্সারসাইজ কিভাবে করে ও কেগেল এক্সারসাইজ কিভাবে করে তা জানতে পরবর্তী অংশ গুলো পড়ুন।

কেগেল এক্সারসাইজ কিভাবে করে

কেগেল এক্সারসাইজ কিভাবে করে তা অনেকে জানেন না। কেগেল ব্যায়াম করার জন্য সর্বপ্রথম কাজ হলো সঠিক পেলভিক পেশি। ব্যায়াম করার পূর্বে প্রসাব করে নিতে হবে যাতে মত্রতলী খালি থাকে। তারপরে মেঝেতে শুয়ে পড়ুন। এরপরে পেলভিস পেশি ধীরে ধীরে সংকোচন করুন। এভাবে ৫-১০ সেকেন্ড ধরে রাখুন ও একই ভাবে ৫/৬ বার এমন করুন। এভাবে সময় বৃদ্ধি করার চেষ্টা করুন। দিনে ২ থেকে ৩ বার আপনার সময় মতো করতে পারেন। আশা করি এই বিষয়ে ধারণা পেয়েছেন। এছাড়াও কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা ও মহিলাদের কেগেল ব্যায়াম সম্পর্কে জানতে পরবর্তী অংশটি পড়ুন। 

কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা

কেগেল এক্সারসাইজ কি তা আমরা ইতিমধ্যে জেনেছি। কিন্তু আপনি কি জানেন কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা কি? অনেকে হয়তো কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা সম্পর্কে অবগত নয়। এই পাঠে আমরা কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা গুলো জানবো। কেগেল এক্সারসাইজ যেহেতু একটি বিশেষ ধরনের এক্সারসাইজ, তাই কেগেল এক্সারসাইজ এর উপকারিতা গুলো আমাদের জেনে রাখা দরকার।

আরো পড়ুনঃ মুখের তৈলাক্ততা দূর করার উপায়

এটি শরীরের সামগ্রিক ফিটনেস ধরে রাখতে কার্যকরী একটা ব্যায়াম। মেয়েদের যোনিকে শক্ত করে তোলে ও যৌন শক্তি বাড়িয়ে তোলে। পাশাপাশি ছেলেদের কে দ্রুত বীর্যপাত হতে মুক্তি দেয়। এটি প্রস্রাব এর ফুটো রোগ প্রতিরোধ করতে করে। এমনকি গর্ভাবস্থায় কেগেল ব্যায়াম করলে শরীর স্বাভাবিক প্রসব এর জন্য প্রস্তুত হয়। এছাড়া কেগেল ব্যায়াম এর ফলে পিঠের ব্যথাও কমে আসে। এই ব্যায়াম করার ফলে মহিলাদের শরীর মেনোপজের জন্য তৈরি হয়। এছাড়া আরো অনেক উপকারি রয়েছে এই ব্যায়ামে।

মহিলাদের কেগেল ব্যায়াম 

পুরুষ দের মতো মহিলাদের কেগেল ব্যায়াম এর কিছু নিয়ম রয়েছে। তবে নিয়ম গুলো প্রায় একই। এটি করার জন্য সর্বপ্রথম কাজ হলো পাদ আটকানোর মতো করে পেলভিক পেশীগুলো কে খুজে বের করা। এরপরে যোনিতে আঙুল ঢুকিয়ে পাশের পেশিগুলো শিথিল করে দিন। কিছু সময় পর দেখবেন সেগুলো আবার আগের অবস্থানে চলে এসেছে৷ এরপরে মেঝেতে শুয়ে পেলভিস পেশি ধীরে ধীরে সংকোচন করুন ৫ সেকেন্ড অন্তরান্তর। এভাবে ৫/৬ বার করতে থাকুন ও দিনে ২-৩ বার করুন। আশা করি এই বিষয়ে ধারণা পেয়েছেন। এছাড়া কেগেল ব্যায়াম করার ছবি দেখতে শেষের পাঠটা পড়ুন। 

কেগেল ব্যায়াম করার ছবি

অনেকে আছেন যারা কেগেল এক্সারসাইজ সম্পর্কে বুঝতে পারলেও কিভাবে করবেন তা নিয়ে চিন্তায় থাকেন। তাদের সুবিধার্থে কেগেল ব্যায়াম করার ছবি দিবো যাতে আপনারা খুব সহজে ধারণা পান। চলুন দেখে নিই কেগেল ব্যায়াম করার ছবি -

ইমেজ সোর্স: Boldsky Bengali 


ইমেজ সোর্স: Quora
আশা করি আজকের পোস্ট টি আপনাদের কাছে ভালো লেগেছে। পোস্ট টি পড়ে আপনি যদি উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে পোস্টটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। প্রতিদিন এমন ভালো ভালো পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি নিয়মিত ভিজিট করুন৷ এতক্ষণ আমাদের সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। 18801 

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url